আশ্রায়নের নামে কেলেংকারী রক্ষকরাই বক্ষক

প্রকাশিত: ৪:০৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০২২

আশ্রায়নের নামে কেলেংকারী রক্ষকরাই  বক্ষক

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধিঃ
গত ২ বছর যাবৎ চলমান রাষ্ট্রীয় আশ্রায়ন প্রকলল্পের আওতায় উপজেলা নিবার্হী , পিআইও ,সহকারী কমিশনার ভুমি জনপ্রতিনিধি মহোদয়গনের নিয়ন্তনাধীন বিয়ানিবাজার উপজেলা কৌটায় ভুমিহীন গৃহহীনদের জন্য নির্মান করা হয়েছে প্রথম পযায়ে শতাধিক ঘর কটুখালির পার মুল্লাপুর ইঊনিয়ন ও বিয়ানীবাজার পৌরসভার খাসা পন্ডিত পাড়া।
উভয় আশ্রায়ন প্রকল্পে যতেষ্ট অনিয়ম দুর্নীতি স্বজনপ্রীতি দৃশ্যমান ভারী লোকবল ও বুখবল নিয়ে আপাদমস্তক আমলারা নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের ভাগ ভাটওয়ারা চেইন মেইনটেইন করে অর্থের বিনিময়ে স্হানিয়দের বণ্চিত করে , গ্রামের ভিতরে আশ্রায়ন প্রকল্পে সুযোগ দেওয়া হয়েছে বহিরাগতদের!
আবেদন কৌটা ভিত্তিক স্হানিয়দের শতভাগ সুযোগ সুবিধা আশ্রায়নে দেওয়ার নিয়ম থাকা সত্ত্বেও ,সুযোগ দেওয়া হয়েছে বহিরাগতদের ,যাদের বাড়ী বিয়ানীবাজার উপজেলার বাহিরে ( ঢাকা চট্টগ্রাম খুলনা রাজশাহী বরিশাল যশোর ) ইত্যাদি থেকে আগত বিয়ানীবাজার বসবাসরত ,তাও আবার সুযোগ দেওয়া হয়েছে শুধু মুল্লাপুর ইউনিয়নে বসবাসরতদের ,যা বাস্তবে সমস্ত উপজেলা ভিত্তিক সমহারে বন্টন করার নিয়ম।
একইপ্রন্তা অবলম্বন করাহয়েছে চলমান বিয়ানীবাজার পৌরসভার খাসা পন্ডিত পাড়া আশ্রায়ন প্রকল্পের আওতায় নব নির্মিত ২৯ টি গৃহ বন্টনে ,যেখানে বি বাজার উপজেলার ভিবিন্ন ইঊনিয়ন থেকে আগতদের সাথে সুযোগ দেওয়া হয়েছে সাথে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত বহিরাগতদের ,বাদ দেওয়া হয়েছে স্হানিয় গৃহহীনদের ,যেহেতু উপজেলা ভিত্তিক বরাদ্ব কৌটা সেহেতু বহিরাগতরা তাদের নিজ নিজ এলাকা ,উপজেলার আওতায় আশ্রায়ন প্রকল্পের সুযোগ নেওয়ার নিয়ম থাকলেও অথ‘ ও স্বার্থের বিনিময়ে বিয়ানীবাজারের কৌটা থেকে রাষ্ট্রীয় এ সুযোগ তাদের কে দেওয়া রহস্যময় । স্হানিয় এমপি গনসংযোগ ও গনসাক্ষাতে আসেন এ সব খবরাখবর কি রাখেন না ,রাষ্ট্রীয় আমলা কামলা নেতা জনপ্রতিনিধিদের দুর্নীতি স্বজনপ্রীতি অনিয়মের কাছে প্রজাতন্ত্রের সাধারণ মানুষ এতই অসহায়, যেখানে প্রতিবাদ, প্রতিরোধ আছে ,নেই কোন প্রতিকার বলে স্হানিয় গৃহহীন ভুমিহীন পৌরসভার জন্মসুত্রে বাসিন্দার কামাল হোসেন, আজিবুন, জাকির হোসেন,জামাল উদ্দিন অনেকেই ক্ষোযাভ প্রকাশ করেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ