নূরানী সমাজ কল্যাণ উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি নারী নেত্রী ফাতেমা জান্নাতের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

প্রকাশিত: ৬:৪৩ পূর্বাহ্ণ, মে ৭, ২০২০

নূরানী সমাজ কল্যাণ উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি নারী নেত্রী ফাতেমা জান্নাতের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

সিলেটের নিউজঃ
করোনা ভাইরাস নিয়ে সারা বিশ্ব যখন আতঙ্কিত, বাংলাদেশ সরকার সারাদেশ লকডাউন ঘোষনা করে সবাইকে ঘরে থাকার নির্দেশ দেওয়ায় ঘরবন্দী সিলেটের শ্রমজীবী মেহনতী মানুষ ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী মানুষের পাশে দাড়িয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন নূরানী সমাজ কল্যাণ সংস্থা । নূরানী সমাজ কল্যাণ উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি সিলেট মহানগর মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী ও যুব পুরস্কারপ্রাপ্ত ফাতেমা জান্নাতের উদ্যোগে ও প্রবাসী ও কয়েজন শুভাকাক্ষীদের সহযোগিতায় বৃহস্পতিবার বাড়ি বাড়ি গিয়ে দিন মজুর,শ্রমিক,অস্বচ্ছল নিম্ম ও মধ্যবিত্ত পরিবারের মধ্যে নারী নেত্রী ফাতেমা জান্নাত খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রযুসের সভাপতি জামাল খান, প্রযুস সাধারণ সম্পাদক আফিকুর রহমান আফিক, ইনসাফ ভিলেজ ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়ুথ সোসাইটির সভাপতি, জাতীয় প্রশিক্ষিত যুব সংসদ প্রযুস সাংগঠনিক সম্পাদক, জাতীয় যুব পুরস্কার প্রাপ্ত মোঃ নজরুল ইসলাম।
সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে নগরীর পাঠান টুলায় এক সংক্ষিপ্ত সভায় নারী নেত্রী ফাতেমা জান্নাত বলেন, বাংলাদেশে টানা সাধারণ ছুটিতে শ্রমজীবী মানুষের দুর্দশা এখন চরমে,তাদের কষ্ট লাঘবে সরকার আন্তরিক ভাবে কাজ করে যাচ্ছে কিন্তু সরকারের পাশাপাশি উচিৎ হবে দেশপ্রেমিক অরাজনৈতিক স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক যুব সংগঠন গুলোকে এগিয়ে আসা। তিনি সংস্থার কার্যক্রম স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে চালিয়ে যাবার ও মানুষের কল্যাণে কাজ করার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন । শ্রমজীবী অসহায় মানুষের তালিকা তৈরি করে ১১৫ টি পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী নিজে ফাতেমা জান্নাত দিনেও রাতের অন্ধকারে ঘরে ঘরে গিয়ে উপহারের প্যাকেট পৌঁছে দেন।

দিন মজুর,শ্রমিক,অস্বচ্ছল নিম্ম ও মধ্যবিত্ত এই পরিবারগুলোর আত্মসম্মানবোধকে সম্মান জানাতে লাইনে আকারে ফটোসেশনের মাধ্যমে না দিয়ে সময় ভেদে দিনে এবং রাতের অন্ধকারে যাতে কেউ না দেখে সেভাবে উপহার সামগ্রীর প্যাকেট গুলো তাদের পরিবারে পৌঁছানোর ব্যবস্থা কওে দেন ফাতেমা জান্নাত। এই বৈশ্বিক মহামারিতে সামান্য এই উপহারটুকু পেয়ে তাদের অনুভুতি ছিলো অনেক আবেগের। সংঘঠনের কোন সদস্য ফটোসেশন করে নাই বলে উপকারভোগীরা অবাক হয়ে যান। সংঘঠনের পক্ষ থেকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানানো হয় যাদের আর্থিক সাহায্যের কারণে তাদের ঘরে খাবারের ব্যবস্থা হয়েছে। উল্লেখ্য নারী নেত্রী ও যুব পুরস্কার প্রাপ্ত ফাতেমা জান্নাত জানান দীর্ঘদিন যাবৎ ঝরেপড়া অসহায় নারীদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। সে সিলেট সদর উপজেলার ও নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে প্রায় সহ¯্রাধিক যুব নারীদের সেলাই প্রশিক্ষন দিয়ে তাদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলেছেন। প্রেস-বিজ্ঞপ্তি।

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

shares