মধুশহীদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের তদন্তে মিথ্যা প্রমাণিত

প্রকাশিত: ৪:৩২ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২০

মধুশহীদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকার         বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের তদন্তে মিথ্যা প্রমাণিত

এম ইজজাুল হক ইাজাজঃ
সিলেট নগরীর মধুশহীদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সেলিনা বেগম এর বিরুদ্ধে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবরে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় পঞ্চয়েত কমিটির কয়েকজন সদস্য কর্তৃক দায়েরকৃত অভিযোগের সরেজমিন তদন্ত আজ ২ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে বিদ্যালয় ক্যম্পাসে অনুষ্ঠিত হয়।
আনীত অভিযোগসমুহের তদন্ত করেন সিলেট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কর্তৃক গঠিত একটি তদন্ত কমিটি। এ কমিটির আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো.আব্দুল মোন্তাকিম। কমিটির সদস্য ছিলেন সিলেট সদর উপজেলার সহকারি শিক্ষা অফিসার লিপিকা রায় এবং দক্ষিণ সুরমা উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার লুৎফুর রহমান।
তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনাকালে অন্যন্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি সিলেট জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন চন্দ্র তালুকদার, বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির সিলেট সদর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় কুমার নাথ এবং একই সংগঠনের সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক গণেশ পাল দীপু।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটির কাছে মধূশহীদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সেলিনা বেগম তাঁর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সমুহের প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট কাগজপত্রসহ ব্যাখ্যাসহকারে তাঁর লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন।
তদন্ত কমিটি কর্তৃক সরেজমিনে তদন্তকালে প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অভিযোগকারীদের আনীত অভিযোগ সমুহের চুলচেরা বিশ্লেষণ এবং প্রধান শিক্ষিকা কর্তৃক উপস্থাপিত বক্তব্য ও সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র পর্যালোচনা করে দায়েরকৃত অভিযোগের কোনো সত্যতা পাননি। এমতাবস্থায় তদন্ত কমিটির কাছে প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অভিযোগকারীদের আনীত অভিযোগ সমুহ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং ভিত্তিহীন বলে প্রতীয়মান হয়েছে।
তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনাকালে দেশে করোনা সংকট চলমানবস্থায় সরকারি নির্দেশনা লঙ্ঘনপুর্বক বিনা অনুমতিতে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অভিযোগকারীদের দ্বারা একটি মানবন্ধনের আয়োজন করা হয়। এতে তদন্ত কমিটি বিব্রত ও বিষ্মিত হন।

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

shares