হাওলাদার পাড়ায় প্রবাসী নারীর কোটি টাকার ভূমি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত: ৫:৩৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০২১

হাওলাদার পাড়ায় প্রবাসী নারীর কোটি টাকার ভূমি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

প্রবাসে অবস্থানের সুযোগ নিয়ে ফরায়েজ অনুসারে প্রাপ্ত সম্পত্তি জালিয়াতির মাধ্যমে অপর ভাই ও বোনেরা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন সিলেট নগরের হাওলাদার পাড়ার মৃত আব্দুল মালিক চৌধুরীর স্ত্রী যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মোছা. শেখার বেগম। এ জমি হাতিয়ে নেয়ার পাশাপাশি তার মায়ের উত্তরাধীকার থেকে প্রাপ্ত জমি থেকেও তাকে বঞ্চিত করার পায়তারা চলছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

শনিবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে প্রবাসী শেখার বেগম দাবি করেন, ‘তিনিসহ তারা ছয় বোন এবং দুই ভাই। এদের মধ্যে এক ভাই কামাল উদ্দিন তালুকদার ২০১৯ সালের ১৭ জুলাই মৃত্যুবরণ করেন। তার কোন ছেলেসন্তান না থাকায় ইসলামের সম্পত্তি আইন অনুসারে তার ভূসম্পত্তি থেকে প্রত্যেক ভাই-বোন প্রায় ৬ শতক করে জমি প্রাপ্য হন। কিন্তু তিনি বিদেশে অবস্থান করায় তার অবর্তমানে জাল উত্তরাধিকারী সনদপত্র ও বাটোয়ারানামা তৈরি করে তার প্রাপ্ত অংশের জমি অপর ভাই-বোনেরা ভাগ-বাটোয়ারা করে নেন এবং পরে আমার অংশের সেই ভূমি থেকে বেশিরভাগ জায়গাই বিক্রি করে ফেলেছেন।’

তিনি আরও বলেন, তার নানার উত্তরাধীকার হিসেবে তার মা ছমিরা বেগম প্রায় ৪৭ শতক জায়গা পেয়েছেন। সেই জায়গা থেকে তিনি আরও প্রায় ৮ শতক জায়গা প্রাপ্য হন। বর্তমান রেকর্ড অনুযায়ী সে জায়গার অবস্থান হচ্ছে জালালাবাদ থানাধীন ব্রা²ণশাসন মৌজায়। গত বছরের ২২ মার্চ তার মায়ের মৃত্যু হলে ভাই-বোনেরা জমি ভাগভাটোয়ারার উদ্যোগ নেন। কিন্তু তিনি প্রবাসে থাকার কারণে সেই জমি থেকেও তাকে বঞ্চিত করার পায়তারা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

তিনি দাবি করেন, তারই প্রয়াত ভাই কামাল উদ্দিন তালুকদারের স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিনের নির্দেশে তার বোন রেখা বেগমের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক রাজন (৪০) জালিয়াতির মাধ্যমে তার নাম বাদ দিয়ে জাল উত্তরাধিকারী সনদপত্র ও বাটোয়ারানামা দলিল তৈরি করে ভাইয়ের অংশ থেকে পাওয়া প্রাপ্য সম্পত্তি থেকে তাকে বঞ্চিত করেছে এবং মায়ের সূত্রে পাওয়া জমিও তাকে না দিয়ে বিক্রি করা পায়তারা করছে। তিনি তার সম্পত্তি ফিরে পেতে চলতি বছরের ৩১ মার্চ দেশে এসে রাজনের সাথে দেখা করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। উল্টো রাজন ও সাবিনা চক্র তাকে এবং প্রবাসে থাকা তার সন্তানদের ফোন দিয়ে হুমকি দিচ্ছে বলেও দাবি করেন তিনি। এরপর তিনি ভূসম্পত্তি ফিরে পেতে সিলেট জেলা যুগ্ম জজ (দ্বিতীয়) আদালতে গত ২৭ জুন মামলা দায়ের করেছেন। যার স্বত্ব (বাটোয়ারা) মোকদ্দমা নম্বর ১১০/২০২১ ইং।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি প্রভাবশালী জালিয়াত ও প্রতারকদের হাত থেকে তার সম্পত্তি ফিরে পেতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

shares